News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

নারায়ণগঞ্জে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের সকালে উল্লাস বিকেলে আফসোস


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | সিটি করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ১০:৩২ পিএম নারায়ণগঞ্জে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের সকালে উল্লাস বিকেলে আফসোস

২২ নভেম্বর মঙ্গলবারের সকালটা শুরু হয়েছিল আর্জেন্টিনা সমর্থকদের উচ্ছ্বাসের মধ্য দিয়ে। কারণ এদিন বিকেলেই শুরু হবে বিশ্বকাপ জয়ের লক্ষ্যে নামা আর্জেন্টিনার সাথে সৌদি আরবের ম্যাচ। চলতি বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার এটাই প্রথম লড়াই। গ্রুপের সবচেয়ে দুর্বল টিম সৌদি আরবের সাথে অনেকটা হেসে খেলেই জয় পাবে আর্জেন্টিনা এমনই ধারণা ছিল সমর্থকদের। কারণ ফিফা র‍্যাংকিং এ এই গ্রুপের সবচেয়ে পেছন সারির দল সৌদি আরব। সম্ভাব্য বিজয়ের পূর্বেই নারায়ণগঞ্জ শহরে মিছিল নিয়ে উৎসবে মেতে উঠেন আর্জেন্টিনা সমর্থকরা। মোটরসাইকেল, গাড়ি আর মানব শোভাযাত্রা করে আর্জেন্টিনা দলের প্রতি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ভক্তরা।

মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগ এলাকা থেকে বের হয় আর্জেন্টিনা ভক্তদের শোভাযাত্রা। মেসি, ডি-মারিয়ার ছবি, প্ল্যাকার্ড, পতাকা, সাউন্ড সিস্টেমসহ বের করা হয় এই শোভাযাত্রা। শহরের কাউন্সিলর, ব্যবসায়ী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষজন যুক্ত হন এতে। তাদের দেখে আশেপাশে থাকা আর্জেন্টিনা ভক্তরা উল্লাসে মেতে উঠেন। পুরো শহর যেন আর্জেন্টিনা ভক্তদের উচ্ছ্বাসের নগরীতে রূপ নেয়।

আর্জেন্টিনা সমর্থক গোষ্ঠী শোভাযাত্রা ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনির, শোভাযাত্রার উদ্যোক্তা স্বপন দাস, আমিনুর ইসলাম মিঠু, তাপস সাহা, সেলিম হাসান দিনার প্রমুখ। আরো ছিলেন, শহরের গলাচিপায় নিজের বাড়ী ও প্রাচীর নিজের হাতে আর্জেন্টিনার পতাকা রঙে রাঙানো আফজাল মুন্সী।

শোভযাত্রায় উদ্যোক্তারা কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা দলের সফলতায় শুভ কামনা করে তৃতীয়বারের মত তারা বিশ্বকাপ ট্রফি প্রত্যাশা করেন। আর্জেন্টিনার খেলা দেখুন, খেলাকে ভালোবাসুন। আমরা আশাবাদী এবারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা হবে।

আনন্দ শোভাযাত্রা পূর্বে উদ্যোক্তা স্বপন দাস জানান, মঙ্গলবার বিকালে বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনার প্রথম খেলায়। সে জন্যই শুভ কামনায় সকালে সমর্থকদের নিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা আয়োজন করা হয়েছে। মিছিলে সমর্থকরা প্রিয় দলের জার্সি ও বিভিন্ন সেজে এসেছেন। আর্জেন্টিনা সমর্থকরা দলের প্রিয় খেলোয়াড় মেসি, ডি-মারিয়ার ১০ ফুট করে প্লেকার্ড নিয়ে হাজির হয়েছেন।

উদ্যোক্তা তাপস সাহা জানান, শোভাযাত্রায় শহর ও আশেপাশে বিভিন্ন এলাকা থেকে শত শত সমর্থকরা শরিক হয়েছে। অর্ধশতাধিক আর্জেন্টিনা পতাকা নিয়ে মোটর সাইকেল যোগ দিয়েছেন।

আমিনুর ইসলাম মিঠু ও সেলিম হাসান দিনার জানান, এইচ.এস.সি পরিক্ষায় থাকায় শোভাযাত্রা অনেক সমর্থকরা আসতে পারে নাই। তার মধ্যে অনেকে কাজে চলে গেছেন। তারপরও বিশ^কাপ ফুটবল বিভিন্ন গানের মাধ্যমের এই মিছিলটি আনন্দময় পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।

কিন্তু শোভাযাত্রার মাত্র সাত ঘন্টার মাথায় সেই উচ্ছ্বাস রূপ নেয় বিষাদে। বিশ্বকাপ গ্রুপ পর্বের সবচেয়ে দুর্বল দল সৌদি আরবের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয় আর্জেন্টিনা। ভক্তরা যেন কোনভাবেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না নিজ দলের এমন পরিণতি। নামি-দামী তারকায় ঠাসা টিম আর শত শত ফুটবল বোদ্ধাদের ভবিষ্যৎবানী এক নিমিষে নিঃশেষ হয়ে যায় ভক্তদের কাছে। একই খেলা দেখে ব্রাজিল সমর্থকরা মেতে উঠেন উল্লাসে। সৌদি আরবের পক্ষ নিয়ে করতে থাকেন উচ্ছ্বাস। কোন কোন এলাকায় মিষ্টি বিতরণও শুরু হয়ে যায়।

খেলার প্রথমার্ধে বেশ দাপটের সাথেই শুরু করে আর্জেন্টিনা। প্রথম ১০ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি থেকে গোল পায় আর্জেন্টিনার পোস্টার বয় মেসি। উচ্ছ্বাসে মেতে উঠে পুরো নগরী। এরপর আরও বেশ কয়েকটি গোলের দেখা পেলেও অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়ে যায়। কাতার বিশ্বকাপের আধুনিক প্রযুক্তির কল্যাণেই ডি বক্সের ফাউল যেমন পেনাল্টি এনে দিয়েছে, তেমনি বেশ কয়েকটি গোল বাতিল করে দিয়েছে অফসাইডের কারণে।

দ্বিতীয়ার্ধে আর্জেন্টিনার উপর চেপে বসে সৌদি আরব। ১০ মিনিটের ব্যবধানে দুটি গোল করে চমকে দেয় আর্জেন্টিনাকে। এরপর পুরো ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয় উভয় দলের। কিন্তু সৌদি আরবের শক্তিশালী ডিফেন্স এবং গোলকিপারের অসামান্য নৈপুণ্যে জয় পায় সৌদি আরব। পুরো শহরের আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মাঝে নেমে আসে বিষাদের কালো ছায়া। টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকা শক্তিশালী আর্জেন্টিনা শেষ পর্যন্ত গ্রুপের সবচেয়ে দুর্বল দলের সাথেই পরাজিত হলো!

খেলার ফলাফল নিয়ে মিশনপাড়ার বাসিন্দা সোহান বলেন, ‘সৌদি আরব দুর্দান্ত খেলেছে। তাদের দলের সম্পর্কে যতটা ভেবেছি তার চাইতে অনেক ভালো দল নিয়ে এসেছে তারা। গোল কিপার ছিল অসাধারণ দক্ষ। আর্জেন্টিনার সাথে বিজয় অঘটন বটে, কিন্তু সৌদি আরব যেভাবে দাপটের সাথে খেলেছে তাতে প্রমাণ হয় তারা বেশ ভালো টিম নিয়েই এসেছে।’

আর্জেন্টিনা সমর্থক মেহেদী বলেন, ‘খেলায় হারজিত থাকবেই। প্রথম ম্যাচ দুর্ভাগ্যবশত হেরে গেলেও পরবর্তী ম্যাচে আমরা ভালো করবো প্রত্যাশা রাখছি। আজকের খেলায় অঘটন ঘটলো বটে, কিন্তু আর্জেন্টিনার সামনে এখনও সুযোগ আছে। আশা রাখছি পরবর্তী খেলায় নতুন রূপে ফিরবে মেসির দল।’

এদিকে সৌদি আরবের বিজয়ে নগরীর বিভিন্ন স্থানে উল্লাস করে মিছিল করেছেন ব্রাজিলের সমর্থকরা। পাড়া মহল্লায়, চায়ের দোকানের আড্ডায় কিংবা টিভি স্ক্রিনের সামনে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের নানানভাবে উত্ত্যক্ত করেছেন। গত ৮ বছর ধরে জার্মানির সাফল্য নিয়ে ব্রাজিল সমর্থকদের উত্ত্যক্ত করার শোধ নিয়েছেন এবার সৌদি আরবের বিজয়ের মধ্য দিয়ে। ফলে মিষ্টি বসচা ছিলো নগরজুড়েই। এর বাইরে সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এলাকায় সৌদি আরবের বিজয়ে মিষ্টি বিতরণও করেছেন এক ভক্ত। এভাবেই খেলার আবেগ নিয়ে দারুণ উন্মাদনায় ছিলেন ফুটবল প্রেমিরা।

ব্রাজিল ভক্তরা বলছেন, সকালে যেভাবে উল্লাস করে শহরে নেমে এসেছিল আর্জেন্টিনা সমর্থকরা। সন্ধ্যার পরে তাদের আর দেখতে পাওয়া যায়নি। সকলেই ডুব দিয়েছেন আড়ালে। এমনকি সন্ধ্যার পরে আর্জেন্টিনার জার্সি পরিহিত সমর্থকদেরও আর খুজে পাওয়া যায়নি। ফলে বলাই যায় হারের পর আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মাঝে বিষাদ নেমে এসেছে।

Islams Group
Islam's Group