News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

শ্যামাপূজায় নিতাইগঞ্জে ‘অনুরক্তি’র আলোকচিত্র প্রদর্শনী


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: অক্টোবর ২৫, ২০২২, ১১:৪৪ পিএম শ্যামাপূজায় নিতাইগঞ্জে ‘অনুরক্তি’র আলোকচিত্র প্রদর্শনী

রণবীর রায় চৌধুরী স্মৃতি সংসদ আয়োজিত ৪৯তম শ্রী শ্রী শ্যামা পূজা উৎসব ও এনপিসি’র চারদিন ব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী “অনুরক্তি” শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) নারায়ণগঞ্জের নিতাইগঞ্জের আর কে দাশ রোড এলাকার রণবন ভেন্যুতে এ প্রদর্শনী শুরু হয়। চারদিন ব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি উদ্বোধন করেন দেশবরেণ্য আলোকচিত্রী নাসির আলী মামুন।

জানা যায়, আবহমান বাংলার শক্তিপ্রবাহের প্রতীক মা শ্যামা যিনি অশুভকে দমন করে, অজেয়কে জয় করে হয়ে উঠেছেন "কালী", সার্বজনীন "মাকালী"। রামপ্রসাদ থেকে শুরু করে কাজী নজরুল-শ্রীরামকৃষ্ণ থেকে স্বামী বিবেকানন্দ- অনেক মনীষীর অন্তরের অনুপ্রেরণা হয়ে কোটি মানুষের ভক্তিরসে সিক্ত হয়েছেন। শ্যামা মা অনুপ্রেরণা হয়েছিলেন স্বর্গীয় রণবীর রায় চৌধুরীর জীবনেও। আজ থেকে ৪৯ বছর আগে পারিবারিকভাবে শ্যামা মায়ের পূজা শুরু করেছিলেন তিনি। অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে, পরম মমতায়, ভক্তি ভরে তিনি মায়ের পূজা করে গেছেন। রণবীর রায় চৌধুরীর দেহান্তরের পর তাঁর উত্তরাধিকারীরা বাবার আকাক্সক্ষাকে বয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বাৎসরিক এ আয়োজন গড়ে উঠেছে ২০০৫ সালে উত্তরাধিকারগণের রণবণকে কেন্দ্র করে। পারিবারিকভাবে এ পূজা অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হলেও এটি নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশের অসংখ্য দর্শনার্থীর আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে। শুরু থেকে অদ্যাবধি এ পূজার সজ্জায় শ্যামা মায়ের প্রতিমা ঘিরে থাকতো কাহিনী নির্ভর ছোট ছোট বিভিন্ন দৃশ্য-প্রতিমা।

তবে এবার আয়োজনটা ছিল একটু ব্যতিক্রমী। নারায়ণগঞ্জ ফটোগ্রাফিক ক্লাবের উদ্যোগে এবারই প্রথম পূজার সজ্জায় উৎসবটি ঘিরে থাকছে বিভিন্ন আলোকচিত্র। যা "অনুরক্তি" শিরোনামে প্রদর্শিত হচ্ছে।

সৃষ্টিকর্তার সান্নিধ্য পাওয়ার, তাঁকে পরম ভক্তি নিবেদনের আকাঙ্খা মানুষের অনাদি কালের, জাত-বর্ণ-ভাষা বিভিন্ন হলেও আকাক্সক্ষার অভীষ্ট অভিন্ন- সৃষ্টিকর্তার কৃপাকাঙ্খা। সে আকারেই হোক কিংবা নিরাকার, মানুষ তাঁকে ভক্তি নিবেদন করে পরম মমতায়। তিনি বহমান থাকেন মানুষের মানবিকতায়, সৃজনশীলতায়। কোনো একক রূপে তিনি আবদ্ধ হয়ে পড়েন না। নারায়ণগঞ্জ ফটোগ্রাফিক ক্লাবের সদস্যরা দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানের ধর্মীয় সংস্কৃতি, আচার, ভক্তি এবং বিভিন্ন পূজা-পার্বণের এমন কিছু আলোকচিত্র ধারণ করেছেন যার মূলসুর অভিন্ন।

উদ্বোধনকালে দেশবরেণ্য আলোকচিত্রী নাসির আলী মামুন বলেন, দীপাবলি উৎসবকে কেন্দ্র করে আজকের যে আয়োজন করা হয়েছে তা আমাদের নারায়ণগঞ্জের কৃতি সন্তান রণবীর রায় চৌধুরী প্রয়াত স্বর্গীয় তিনি ৪৯ বছর আগে দীপাবলি উৎসবের আয়োজন করেছিলেন। এটা এখন তার ছেলে জয় কে রায় চৌধুরী আয়োজন করেন। এই আয়োজনটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। কারণ হিন্দু মুসলমানের এক মিলনমেলা আমি এখানে দেখতে পাচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি এই গ্যালারী নারায়ণগঞ্জকে সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে নেতৃত্ব করবে এবং এই গ্যালারীতে এসে অনেক প্রথিতদশা আলোকচিত্রী তাদের ছবি প্রদর্শনী করবে। আমিও এই গ্যালারীতে ছবি প্রদর্শনী করার আগ্রহ প্রকাশ করলাম।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ ফটোগ্রাফিক ক্লাবের সভাপতি এবং অনুরক্তি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর সহ-প্রতিষ্ঠাতা জয় কে রায় চৌধুরী বলেন, অনুরক্তি শিরোনামের এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে থাকছে চৈত্রসংক্রান্তিতে শিবের সাজ, মুন্সিগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী লালকাজ, বিভিন্ন অঞ্চলের লক্ষ্মী, কালী এবং দুর্গা প্রতিমা নির্মাণ, পূজা এবং বিসর্জন, পদ্মা পারের অষ্টমী স্নান, গড়াই নদীর তীরে মায়ের ভাসান, সিলেটে পাহাড়ি অঞ্চলে দুর্গোৎসব উদযাপন, কুমিল্লার জাহাপুর জমিদার বাড়ির পারিবারিক মিলন, কার্তিকব্রত বা রাখের উপবাস সংক্রান্ত উৎসব উদযাপনের দৃশ্য, দেশের বাহিরে ভারতের বারানাসি ধর্মীয় আচার এবং মালয়েশিয়ার ১২০ ফিট উচ্চতা সম্পন্ন কার্তিক দেবতার উচ্চ স্থাপনা। এবারের প্রদর্শনীতে ২৫ জন আলোকচিত্রীর মোট ৪৫টি ছবি রাখা হয়েছে। এবার যে প্রদর্শনীটির আয়োজন করা হয়েছে এটি আগামীবছরও আয়োজন করা হবে বলে জানান তিনি।

Islams Group
Islam's Group