News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

বিএনপি নিজেরাই মারামারি করবে


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২, ১১:৪৯ পিএম বিএনপি নিজেরাই মারামারি করবে

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদকে নিয়ে মারমুখী ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন নারায়ণগঞ্জের বিএনপির নেতাকর্মীরা। তাকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে পক্ষ বিপক্ষ বলয় তৈরি হয়েছে। কেউ তার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বেশ কড়া ভাষায় বক্তব্য দিচ্ছেন আবার কেউ সালামের পক্ষে অবস্থান নিয়ে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন।

দলীয় সূত্র বলছে, গত ১৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে শহরের মাসদাইর এলাকার মজলুম মিলনায়তনে জেলা ওলামা দলের সভাপতি শামসুর রহমান বেনু ও পুলিশের গুলিতে নিহত শাওনের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মাহফিলে বন্দর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুল বলেছেন, এটা আওয়ামী লীগের কমিটি দেয়া হয়েছে। বিএনপি এত দুর্বল নয়। আওয়ামী লীগের প্রেসক্রিপশনে কমিটি হয়েছে। এ কমিটি লজ্জার ব্যাপার। আজ বন্দরে আমার চেয়ে ছোটরা যদি মহানগরে স্থান পায় এটা অপমানজনক। অনেকে দলের কেউ না হয়েও মহানগরের কমিটিতে স্থান পেয়ে গেছে। কেউ জোর করে পদত্যাগ করেনি। সকলের নিজ ইচ্ছায় পদত্যাগ করেছে। আমাদের দিয়েই এই কমিটি হবে। এসকল নেতাদের দাম দেই না। তারা মুন্সীগঞ্জের লোক হয়ে এখাঁনে রাজনীতি করে। সালাম কিয়ের নেতা, তারে দুই আনা দিয়েও দাম দেই না। তারে দুই আনা দিয়ে গুনায় ধরিনা। উয়ে মুন্সিগঞ্জের কিয়ের নেতা, ওরে দায়িত্ব দিছে এখন চুরি কইরা ধান্দাবাজি কইরা খাইতাছে, ও কেন্দ্রের কিয়ের নেতা, আমরা জনগণের নেতা। সালামকে নারায়ণগঞ্জ অবাঞ্চিত ঘোষণা করলাম। এই সালাম যদি নারায়ণগঞ্জ শহরে প্রবেশ করে তাহলে চামড়া তুলে নিবো।

আতাউর রহমান মুকুলের এই বক্তব্যের পরপরই প্রতিবাদ জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও জেলা বিএনপির সদস্য মাসুকুল ইসলাম রাজীব। তিনি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টসে স্ট্যাটাসে বলেন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আবদুস সালাম ভাইয়ের চামড়া তুলে নিবে এবং নারায়ণগঞ্জে উনাকে অবাঞ্চিত ঘোষনা যারা করেছে তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই শুধু তোমরা না  সাথে তোমরা যাদের এজেন্ট তাদের কেও সাথে নিয়ে নিও তারপরেও যদি উনার একটি পশম স্পর্শ করতে পারো তাহলে জাতীয়তাবাদের  নারায়নগঞ্জের সৈনিকেরা হাতে চুরি পরে এই নারায়ণগঞ্জ ছেড়ে চলে যাবে।

একই ভাবে জেলা বিএনপির আরেক সদস্য রুহুল আমিন বলেন, রাজনীতিতে অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম বানের জলে ভেসে আসেননি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিশ্বস্ত সিপাহসালার, তৃণমূল থেকে উঠে আশা একজন সফল ছাত্রদল ও যুবদল নেতা এবং ঢাকা বিভাগে বিএনপির আস্থার প্রতিক ও অবিভাবক জননেতা অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ।

এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর দুপুরে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ৪১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে আহ্বায়ক হিসেবে অ্যাডভোকেট মো. শাখাওয়াত হোসেন খান এবং সদস্য সচিব হিসেবে অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসুফ খান টিপুকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

আর এই কমিটি ঘোষণার পর থেকেই নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপিতে বাজছে বিদ্রোহের সুর। কমিটিকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের মধ্যে উচ্চাবাচ্য ও হাতাহাতির পর্যায়ের চলে গিয়েছিল। সেই অনেকেই নিস্ক্রীয়তার দিকেও আগাচ্ছেন। মহানগর বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা কোনোভাবেই যেন এই কমিটিকে মেনে নিতে পারছেন না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বইছে সমালোচনার ঝড়। কমিটি ঘোষণার পর থেকেই অনেকেই পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। যা কেন্দ্রীয় বিএনপিকেও অনেক বিব্রত অবস্থার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির এই কমিটি ঘোষণার পিছনে ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদের ভূমিকা রয়েছে। তার পর্যালোচনার ভিত্তিতেই নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির এই কমিটি ঘোষণা রয়েছে।

যার কারণে এই কমিটি ঘোষণার জন্য অ্যাডভোকেট মো. শাখাওয়াত হোসেন খান ও অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসুফ খান টিপুকে দোষারোপের পাশাপাশি আবদুস সালাম আজাদকেও দোষারোপ করছেন বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা শাখাওয়াত টিটুর পাশাপাশি সালামকেও ছাড় দিচ্ছে না। তাকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জে পক্ষ বিপক্ষ বলয় তৈরি হয়েছে।

ফলে আগামী দিনে নারায়ণগঞ্জে আবদুস সালাম আজাদের আগমন ঘটলে অপ্রীতিকর ঘটনাও ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বঞ্চিত নেতাদের অনুসারীরা তার উপর ঝাঁপিয়ে পরার সম্ভাবনা রয়েছে। আর তাদের প্রতিহত করতে সালামের পক্ষের নেতাকর্মীরাও হয়তো ছাড় দিবেন না। এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপিতেই মুখোমুখি অবস্থান তৈরি হয়েছে।

Islams Group
Islam's Group