News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

হাসপাতালের ছাদে স্বচ্ছ পানি, ডেঙ্গু আতঙ্কে রোগীরা


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ১০:৫৩ পিএম হাসপাতালের ছাদে স্বচ্ছ পানি, ডেঙ্গু আতঙ্কে রোগীরা

চলতি নভেম্বর মাসে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের ডেঙ্গু ইউনিটে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন ৫৮ জন। প্রতিনিয়তই নতুন নতুন রোগী ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালে। জেলা প্রশাসন, সিটি করপোরেশন থেকে শুরু করে সকল দায়িত্বশীল দপ্তর থেকেই সতর্ক করা হচ্ছে ডেঙ্গুর বিষয়ে। এমনকি বাড়ির ছাদে পানি জমে থাকলে করা হবে জরিমানা। কিন্তু সর্ষের ভেতইরে যেন ভূত! যেই হাসপাতালে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন রোগী ভর্তি হচ্ছেন, সেই হাসপাতালের ছাদেই জমে আছে ট্যাংকি উপচে পড়া স্বচ্ছ পানি।

গত সোমবার ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের ছাদে উঠে ট্যাংকির নিচের অংশে স্বচ্ছ পানি জমে থাকতে দেখা যায়। কোন কোন স্থানে পানি জমে সেখানে তৈরি হয়েছে শ্যাওলা। ছাদের উপর নির্মাণ কাজ চলায় পানি নেমে যাবার পথও গেছে আটকে। ফলে ছাদের উপর জমেই থাকছে স্বচ্ছ পানি। অথচ সতর্কতার অংশ হিসেবে হাসপাতালকেই সবচেয়ে বেশি পরিচ্ছন্ন এবং এডিস মশার আবাস মুক্ত পরিবেশ থাকা উচিত।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে দায়িত্বরত একজন নাম গোপন রাখার শর্তে বলেন, ‘প্রতিনিয়ত ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের ছাদে ট্যাংকি উপচে পানি পড়তে থাকে। আমরা বিষয়টি খোদ সিভিল সার্জনকেও একদিন দেখিয়েছি। যখন কেউ হাসপাতালে পানি উত্তোলনের মোটর ছাড়ে তখন সেই পানি ট্যাংকি ভরে ছাদে পরতে থাকে দীর্ঘ সময়। পরবর্তীতে অতিরিক্ত পানি হাসপাতালের ছাদে জমে থাকে। কোন বৃষ্টি না থাকা সত্ত্বেও হাসপাতালের ছাদে পানি জমে থাকাটা দুঃখজনক।

হাসপাতালের ডেঙ্গু ইউনিটে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চলতি বছরের আগস্ট মাস থেকে ডেঙ্গু রোগী আসা শুরু হয়। মাস অনুযায়ী রোগীর তালিকায় আগস্ট মাসে ৮ জন, সেপ্টেম্বর মাসে ১৪ জন, অক্টোবর মাসে ৬১ জন এবং নভেম্বরের ২০ তারিখ পর্যন্ত ৫৮ জন সেবা নিয়েছেন। ক্রমবর্ধমাণ তালিকাই বলে দিচ্ছে দিন দিন কতটা বৃদ্ধি পাচ্ছে ডেঙ্গু পরিস্থিতি। অধিকাংশ রোগীই আসছেন শহর, ফতুল্লা ও বন্দর থেকে।

এই বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস বলেন, ‘ডেঙ্গু মুক্ত ওয়ার্ড রাখতে আমরা সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছি। যদি হাসপাতালের ছাদেই স্বচ্ছ পানি জমে থাকে তাহলে সেটা দুঃখজনক। কারণ ডেঙ্গু বাহী এডিস মশা স্বচ্ছ পানিতেই ডিম পারে। বিশেষজ্ঞ নিয়ে দেখতে গেলে হয়তো সেখানে এডিস মশার লার্ভাও পাওয়া যেতে পারে। এই বিষয়ে হাসপাতাল প্রশাসনকে আরও সতর্ক থাকা উচিৎ। ছাদের উপর যেন পানি জমে না থাকে সেই বিষয়টিও নিয়মিত দেখভাল করা প্রয়োজন।

একই বিষয়ে জানতে ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক শেখ ফরহাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোনকল রিসিভ করেননি। তবে এই প্রসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিভিল সার্জন ডা. এএফএম মশিউর রহমান বলেন, ‘আমি এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিবো।’

Islams Group
Islam's Group