News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

মেয়রের ডায়নামিক চিন্তা আমাদের সৌভাগ্য


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: আগস্ট ২৫, ২০২২, ০৭:২১ পিএম মেয়রের ডায়নামিক চিন্তা আমাদের সৌভাগ্য

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস বলেছেন, ‘আমাদের জন্য সৌভাগ্য মেয়রের ডায়নামিক চিন্তা ভাবনার কারণে আজকে আমরা উন্নত স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছি। হেলথের বিষয়টা সিটি করপোরেশনের সরাসরি দায়িত্ব না। কিন্তু সেটা আমরা নারায়ণগঞ্জে শুরু করেছি। আপনাদের সহযোগিতা পেলে এটা আরো ভালোভাবে করতে পারবো।

তিনি বলেন, এই ক্লিনিক এখানে হওয়ার যেদিন সিদ্ধান্ত হয় সেদিন আমি মেয়রের কার্যালয়ে ছিলাম। এই আলোর ক্লিনিক অন্যত্র শুরু হওয়ার জন্য পরিকল্পনা হচ্ছিল। কিন্তু তখন মেয়র মহোদয় এতে বাধা দিয়ে বলেন ১৫নং ওয়ার্ডে করতে হবে। কারণ এই ওয়ার্ডে অসহায় সাধারণ ও নি¤œ শ্রেণির মানুষ আছে। তাদের সেবা প্রয়োজন। তাই এই ক্লিনিক এখানে হওয়ার সম্পন্ন কৃতিত্ব মেয়র মহোদয়ের। এজন্য সবচেয়ে বড় ধন্যবাদ পাওয়ার মানুষ হলেন আমাদের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এতে কাউকে বড় ছোট করার বিষয় না। মেয়র একটা কার্যকর সিদ্ধান্ত হয়েছেন সেটাই বলা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘এই আলোর ক্লিনিকে আমিও একজন সেবা গ্রহীতা। কারণ আমিও এখানে চিকিৎসা নিয়েছি। প্রেশার মাপা ও সুগার টেস্ট করিয়েছি। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছি। তাছাড়া এখানে সন্ধ্যার পর যেই আসবে দেখবেন আধুনিক মানের চিকিৎসা সেবা দেয়া হয় সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। যেটা ঢাকায় ল্যাব এইডসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে টাকার বিনিময়ে দেয়া হয়।

চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগী ও তাদের স্বজনদের উদ্দেশ্যে অসিত বরণ বিশ্বাস বলেন, ‘এ ক্লিনিকে ডাক্তাররা সেবা দিচ্ছে। এর পাশাপাশি আপনাদেরও কিছু দায়িত্ব আছে। যেমন, আমি নিজে যতক্ষণ পর্যন্ত ব্যথা বেদনা সহ্য করতে পারি ততক্ষণ পর্যন্ত নাপা ওষুধ খাই না। অনেকেই আছে একটু অসুস্থ হলেই ওষুধ খেয়ে নেয়। আবার দেখা গেছে প্রয়োজন নেই তারপরও অনেকে আছে ফ্রি ওষুধ দেয় সেজন্য এমনিতেই ডাক্তার দেখিয়ে ওষুধ নিয়ে খায়। শুধু শুধু ওষুধ খাওয়ার মধ্যে কোন উপকার নেই। তবে মনে রাখতে হবে ওষুধ রোগ নিরাময় করতে যেমন কার্যকর তেমনি ওষুধের পাশর্^প্রতিক্রিয়াও আছে। ডাক্তারের পরামর্শ ব্যতীত ওষুধ না খাওয়া ভালো।’

তিনি বলেন, ‘এই ক্লিনিকটা আমাদের ১৫নং ওয়ার্ডবাসীর জন্য অনেক উপকারী। এটা আপনাদের সম্পদ। এটা আপনাদের দায়িত্ব নিয়ে এটাকে সহযোগিতা করবেন। কোন ভাবেই ফ্রি ওষুধের জন্য ওষুধ খাবেন না। যত ওষুধ কম খেতে পারেন ততই ভালো।  আপনারা এ বিষয়ে আত্মীয় স্বজন ও প্রতিবেশীদের জানাবেন। এখানে বিনামূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।’

তিনি বলেন, ‘সিটি করপোরেশন থেকে হেলথ নিয়ে মেয়র মহোদয় অনেক পরিকল্পনা করছেন। এর ধারাবাহিকতায় আলোর ক্লিনিকের বাইরে ৪টি জায়গায় প্রাথমিক হেলথ কেয়ারের দায়িত্ব নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এগুলো হলো গোদনাইলে একটা হেলথ সেন্টার, বন্দরে দুইটা ও শহরের দেওভোগ কৃষ্ণচুড়ার মোড়ে একটি হেলথ সেন্টার আছে। আমি ও আমার পরিবার এখন কৃষ্ণচুড়ার সাথে হেলথ সেন্টারে চিকিৎসা নেই। বন্দরে নরমাল ডেলিভারী করার জন্য বলা হয়েছে। তবে প্রয়োজনে কম টাকায় সির্জারও করার ব্যবস্থা আছে। এগুলো এখন মেয়রের পরামর্শে সিটি করপোরেশন পরিচালনা ও অর্থায়ন করে থাকে। আগে সবাই বলেছে এটা কি করছে? এগুলোর এত টাকা কোথায় থেকে দিবে? কিন্তু মেয়র মানুষের সেবার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখন সেগুলো আস্তে আস্তে উন্নত হচ্ছে। প্রতিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র এখন নিজেস্ব বৈশিষ্ট্য নিয়ে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। যেমন বন্দরে ডেলিভারী, কৃষ্ণচুড়ার মোড়ে ক্যান্সার ও ডায়াবেটিক্স সেবা, গোদনাইলের ডাক্তার বন্ধত্ব বিষয়ে সেবা দিচ্ছে।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ডে ইউনিসেফ এর আর্থিক সহযোগিতায় পার্ট নার্স ইন হেলথ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) এর বাস্তবায়নে ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সার্বিক সহযোগিতায় ‘আলোর ক্লিনিক’ গত ৮মাস ধরে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ক্লিনিকটিতে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ৪জন ডাক্তার দায়িত্ব পালন করেন। শুক্রবার ও সরকারি ছুটিরদিন ব্যতীত প্রতিদিন চিকিৎসা সেবা দেয়া হয় এই ক্লিনিকে। এই ক্লিনিকে ইসিজি, ডায়াবেটিক্স, হেপাটাইটিস বি, রক্তের গ্রুপ, সিবিসি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পরীক্ষা করা হয়। এছাড়াও বাচ্চাদেও ইপিআই টিকা এবং ১৫ বছর থেকে ৪৯ বছর পর্যন্ত নারীদেও টিডি টিকা বিনামূল্যে দেওয়া হয়।

বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ মোস্তফা আলী, জনস্বাস্থ্য ও রোগতত্ত্ববিদ ডা. নিজাম আলী, আলোর ক্লিনিকের ম্যানেজার বদিউজ্জামান, জেনারেল প্রক্যকটিশনার ডা. দিব্য সাহা, ডা. সুলতানা রাজিয়া ফারুকী, ডা. আল-ওয়াজেদুর রহমান, ডা. তানজিদা পারভীন তমা সহ নার্স, রোগী ও তাঁদের স্বজনরা।

বুধবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে শহরের মিনাবাজার এলাকায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নগর অঞ্চলের জন্য সমন্বিত প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রকল্পের অধীনে ‘আলো ক্লিনিক’ এর ওষুধ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে উদ্বোধকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করে রোগীদের মধ্যে বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ করেন।

Islams Group
Islam's Group