News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

গ্যাস না পেলে ব্যবসায়ীরা দেউলিয়া হবে


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২২, ১১:৩৪ পিএম গ্যাস না পেলে ব্যবসায়ীরা দেউলিয়া হবে

গ্যাস না পেলে ব্যবসায়ীদের দেউলিয়া হওয়া ছাড়া আর দ্বিতীয় উপায় থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

নিউজ নারায়ণগঞ্জকে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেলিম ওসমান বলেন, আমাদের দেশ বিদ্যুৎ ও গ্যাসে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমরা যারা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ছিলাম ব্যাংকের সহযোগিতার মাধ্যমে আমরা বৃহৎ ব্যবসায়ীতে পরিণত হয়েছি। প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় ১ কোটি মানুষের সংসার চলছে এর মাধ্যমে। সেখানে আমাদের গ্যাস দেওয়া হচ্ছে না। গ্যাস না পাওয়াতে সব ব্যবসায়ীরা অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। আমরা দিশেহারা হয়ে গেছি জাতির জন্য। ব্যক্তিগতভাবে আমাদের কী হবে জানি না। বর্তমান সরকার যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন আজকে সুযোগ পেয়ে আমরা প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে পারছি। কিন্তু হঠাৎ করে বিদ্যুৎ এবং গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। আবার ডিজেলের দামও বৃদ্ধি করা হয়েছে। যেহেতু ডিজেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে এটার যে বিকল্প অন্য কিছু ব্যবহার করবো তারও উপায় নেই। ক্রেতারা আমাদের ঠিকমতো দাম দিচ্ছে না। ডলারের দাম উঠানামা করছে। ক্রেতারা অর্ডার বাতিল করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমরা দেউলিয়া হয়ে যাবো। এ অবস্থার যদি কোনো পরিবর্তন না হয়, সরকার যদি কোনো পরিবর্তন করতে না পারে তাহলে ১ কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সেলিম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জের গ্যাসটা গেলো কোথায়? এ প্রশ্ন যদি সামনে আসে তাহলে আমরা তদন্ত করে দেখিছি সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার স্টেশনে আমাদের ব্যবহারকৃত গ্যাস সেখানে সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার স্টেশনে দেওয়া হচ্ছে। এখানে কোনো গ্যাসশেডিংয়ের ব্যবস্থা নেই। আমরা সরকার পর্যায়ে আলোচনা করে বলেছি আমাদের এই গ্যাসটাকে গ্যাসশেডিং করে দেওয়া হোক। পাওয়ার স্টেশনও চলুক আমরাও চলি।

তিনি বলেন, আমরা আগে যেখানে ১১-১২ প্রেশার পেতাম সেখানে এখন ০-১ প্রেশার থাকে। এদিয়ে তো আমাদের চলা সম্ভব না। আমাদের জন্য যে বরাদ্দকৃত গ্যাস রয়েছে সে গ্যাসটা কেনো আমরা পাবো না। আমাদের বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল দেওয়ার পাশাপাশি বাহিরে থেকে ডিজেল কিনে ফ্যাক্টরী চালানো অসম্ভব হয়ে গেছে। আজ নারায়ণগঞ্জের মানুষ উত্তেজিত হয়ে গেছে। আমাদের গ্যাসও দেওয়া হবে না আবার বিলও বৃদ্ধি করা হবে তাহলে আমরা কি করে এই ব্যবসা চালাবো।

সেলিম ওসমান আরো বলেন, আমি সকলের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি আমাদের যেনো শিগ্গির গ্যাস দেওয়া হয়। আমাদের যে পণ্যগুলো আটকে আছে সে পণ্যগুলো যেনো বিদেশে পাঠিয়ে দিতে পারি। তা না হলে আমরা সবাই আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবো। সরকারের কাছে বিনীত অনুরোধ থাকবে আমাদের গ্যাস দিয়ে মিল ফ্যাক্টরী চালানোর সুযোগ করে দিবেন। একসময় আমাদের নারায়ণগঞ্জ প্রাচ্যের ডান্ডি ছিল। সবসময় বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে আসছে। যখন আমাদের পাট খাত নষ্ট হয়ে গেলো তখন আমরা বিকেএমইএ প্রতিষ্ঠা করে নিটওয়্যারকে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে নিয়ে এসেছি।

প্রসঙ্গত, শহরের বাবুরাইল, পাক্কারোড, দেওভোগ আখড়া, পালপাড়া, ভূইয়ারবাগ, নন্দীপাড়া, আমলাপাড়া, গলাচিপা, কলেজ রোড, জামতলা, উত্তর চাষাঢ়া, মাসদাইর, মিশনপাড়া, খানপুর, মেট্রো হল, দক্ষিণ সস্তাপুর, সস্তাপুর, কাঠেরপুল ও তল্লাসহ বিভিন্ন এলাকায় কয়েকদিন ধরে গ্যাসের তীব্র সংকট চলছে। এদিকে শুধু আবাসিক নয়, শিল্পকারখানাতেও বিরাজ করছে গ্যাস সঙ্কট। অনেক কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। গ্যাস সঙ্কটের কারণে অনেক কারখানা উৎপাদন বন্ধও রেখেছেন। নারায়ণগঞ্জের শিল্প কারখানাগুলো চালু রাখার জন্য প্রায় ১০০টি ক্যাপটিভ পাওয়ার রয়েছে, যা গ্যাস সঙ্কটের কারণে দিনের বেশিরভাগ সময়ই বন্ধ থাকছে। ক্যাপটিভ পাওয়ারগুলো বন্ধ থাকায় চরম সঙ্কটে পড়ে যাচ্ছে পুরো পোশাক খাত। ইতোমধ্যে বিভিন্ন এলাকা থেকে শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালিকরাও তিতাস গ্যাস অফিসে লিখিত আবেদন দাখিল করেছেন। গ্যাস সঙ্কট নিরসনের দাবি জানিয়ে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান। গ্যাসের দাবিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় গ্যাস সরবরাহের দাবিতে বিভিন্ন পঞ্চায়েত কমিটি, ব্যবসায়ী নেতা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা গ্যাস অফিসের উপ মহাব্যবস্থাপকের কাছে স্মারকলিপি দেন। পরদিন ১২ সেপ্টেম্বর আবাসিক চুলায় পর্যাপ্ত গ্যাসের দাবিতে অরাজনৈতিক ও পরিবেশবাদী সংগঠন ‘আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী’র উদ্যোগে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালিত হয়। ঘেরাও কর্মসূচি শেষে নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের আঞ্চলিক বিপণন বিভাগের উপ মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো. মামুনার রশীদের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। সর্বশেষ ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে নগরীর চাষাঢ়ায় তিতাস গ্যাস কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক বিপণন ডিভিশনের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) প্রকৌশলী মো. আনিসুর রহমানের হাতে বিভিন্ন এলাকার প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি দিয়েছেন স্থানীয় কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

Islams Group
Islam's Group