News Narayanganj
Bongosoft Ltd.
ঢাকা সোমবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

বাণিজ্য মেলায় নানা অব্যবস্থাপনা


দ্যা নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডটকম | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩, ২০২৩, ০৯:৫৬ পিএম বাণিজ্য মেলায় নানা অব্যবস্থাপনা

রূপগঞ্জের পূর্বাচলে শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। আগের তুলনায় অধিক স্টল এবং স্থান সম্প্রসারণ হয়েছে এবারের মেলায়। কিন্তু শুরুতেই নানান অব্যবস্থাপনা হতাশ করেছে দর্শনার্থীদের। মেলা পরিচালনার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, দুদিনের মধ্যেই সব ঠিক হয়ে যাবে।

রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের পরেই খুলে দেয়া হয় মেলা প্রাঙ্গন। এক্সিবিউশন সেন্টারের ভেতরে এবং বাইরে সব মিলিয়ে ৩৩১টি স্টল রয়েছে। এর মধ্যে প্যাভেলিয়ন ও মিনি প্যাভেলিয়ন রয়েছে ৫৭টি, ফুডকোর্ট রয়েছে ২৩টি। এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের একাধিক স্টল রয়েছে মেলাজুড়ে। তবে প্রথমদিনে অধিকাংশ স্টলেই দেখা গেছে পণ্য গোছানোর কাজ করতে এবং স্টল নির্মাণ করতে।

মেলা সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, মেলার এক্সিবিউশন সেন্টারের পশ্চিম হলের সবকয়টি স্টল সাজানো রয়েছে। অন্যদিকে পূর্ব হল, সেন্টারের বাইরে উত্তর এবং দক্ষিণ প্রান্তের অধিকাংশ স্টল নির্মাণাধীন অথবা পণ্য সাজানোর কাজে ব্যস্ত। এছাড়া রঙ, প্লাম্বিং, ডেকোরেশন, লাইটিংসহ নানান ঘাটতি দেখা গেছে স্টলগুলোতে। এর পাশাপাশি এক্সিবিউশনের পশ্চিম হল ব্যতীত বাকি পুরো মেলায় দেখা গেছে বর্জ্য অব্যবস্থাপনার চিত্র। ডেকোরেশনের কাঠ, রঙের কৌটা কিংবা পণ্যের মোড়কে ছেয়ে থাকতে দেখা যায় পুরো মেলা প্রাঙ্গন। প্রথমদিনে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা মেলার ভেতর এমন চিত্র দেখে বিরক্ত হয়েছে।

শুধু স্টল আর বর্জ্য ব্যবস্থাপনাই নয়, মেলার উত্তর প্রান্তে সড়কের উপর ফেলে রাখতে দেখা যায় অসংখ্য আসবাবপত্র। এছাড়া টয়লেটের অবস্থান সম্পর্কে কোন দিকনির্দেশনা না থাকায় আগত দর্শনার্থীদের টয়লেট খুঁজে পেতে ভোগান্তির শিকার হতে হয়। শুধু মেলার ভেতরেই নয়, মেলার বাইরেও ছিল অব্যবস্থাপনার চিত্র। দূর দূরান্ত থেকে গাড়ি ও মোটরসাইকেল নিয়ে আসা ব্যক্তিদের পার্কিং নিয়ে ভোগান্তি পোহাতে হয়। উদ্বোধনের পর গাড়ি পার্কিংয়ের পুরোনো স্থান বন্ধ বলে জানায় দায়িত্বরত কর্মচারীরা। তবে ভিআইপি পাস পেলেই পশ্চিম প্রান্ত থেকে ভেতরে প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছিলেন গাড়ি ব্যবহারকারীরা। যারা ভিআইপি পাসের ব্যবস্থা করতে পারেননি, তারা মেলার মূল ফটকের সামনেই সারি সারি মোটরসাইকেল ও গাড়ি পার্ক করে ভেতরে চলে যান।

মেলা পরিদর্শনে আসা রবিউল ইসলাম বলেন, ‘আমি আজ বছরের প্রথম দিন হিসেবে মেলায় ঘুরতে এসেছি। কিন্তু যেই আশা নিয়ে এসেছি, এখানে এসে তা দেখতে পাইনি। অনেক দোকান এখন পর্যন্ত বানাতেই পারেনি। আশেপাশে ময়লা আবর্জনা পড়ে আছে। হয়তো ৪/৫ দিন পরে সব ঠিকঠাক থাকবে।’ 

একইভাবে আরেক দর্শনার্থী সানি বলেন, ‘আমি ৪০ টাকা দিয়ে টিকেট কেটে মেলায় এসেছি। প্রথমদিন এসে এমন অব্যবস্থাপনা দেখতে হবে জানলে আসতামই না। অনেক দোকানই বন্ধ বা বানানো হয়নি। কেনাকাটার জন্য আমাকে আরেকদিন আসতে হবে। মেলায় ঘুরতে এসে এমন চিত্র দেখে হতাশই হয়েছি।’

মেলার এক্সিবিউশন হলের পূর্ব প্রান্তে কুলফিডো আইসক্রিম স্টল নির্মাণ কাজে নির্দেশনা দিতে দেখা যায় এক ইন্টেরিয়র ডিজাইনারকে। তিনি বলেন, আমাকে দুদিন আগে সময় দেয়া হয়েছে। এজন্য আজকে দিনভর স্টল সাজানোতে সময় দিয়েছি। আগামীকাল থেকে আমাদের স্টল চালু থাকবে।’

ইরান থেকে আগত ব্যবসায়ী বলেন, ‘স্টল নির্মাণে ধীরগতি বললে ভুল হবে। আমরা আজকে দেড়টার পর ভেতরে প্রবেশ করতে পেরেছি। গতকাল আমরা আসতে পারিনি। আগামীকাল থেকে সকল স্টল সাজানো থাকবে।’

তবে এক্সিবিউশন হলের পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত স্টলগুলোর চিত্র ভিন্ন। সেখানে অবস্থিত রংপুর কেমিক্যাল এর বিক্রেতা রাজিয়া সুলতানা বলেন, ‘আমাদের এই পাশের সব স্টল সময়মত প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রথমদিন হিসেবে আমরা ভালোই সাড়া পাচ্ছি। কেনার চাইতে মানুষ আমাদের পণ্য হাতে নিয়ে দেখছে এবং খোঁজ নিচ্ছে।’

মেলার ভেতরে এবং বাইরে অব্যবস্থাপনার বিষয়ে রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সচিব ও বাণিজ্য মেলার পরিচালক ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘গত বছরের থেকে এই বছর প্রায় ১০৬টা স্টল বেশি এসেছে। কিছু স্টল এখনও প্রস্তুত হয়নি। আশা করছি দুই একদিনের মধ্যে সেগুলো প্রস্তুত হয়ে যাবে। সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য ১৬৯টা টয়লেটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তাছাড়া হলের বাইরেও টয়লেটের ব্যবস্থা করেছি আমরা। আর পার্কিংয়ের বিষয়টি হচ্ছে আজ প্রথম দিন হওয়ায় সেভাবে ডিজাইন প্রস্তুত করা হয়নি। ট্রাফিক বিভাগের সাথে কথা হয়েছে এই বিষয়ে। সরকারি ও ভিআইপিদের জন্য প্রায় পাঁচশত গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া পশ্চিম ও পূর্ব প্রান্তে গাড়ি পার্কিং করার পরিকল্পনা রয়েছে। দুই এক দিনের মধ্যেই বিষয়গুলো ঠিক হয়ে যাবে।’

Islams Group
Islam's Group